1. najmush71@gmail.com : admin : Najmush Shakeer
  2. munir2002lubnan@gmail.com : Munirul Huq Khan : Munirul Huq Khan
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:২৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
ইমরান-নাকানো দম্পতির ছোট মেয়ে বাবা-মায়ের কাছে ১ দিন করে থাকবে পাতালরেল নির্মাণকাজের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে আরেক ট্রাকের ধাক্কা, নিহত ২ বকশীগঞ্জে ডিসিসিআই প্রেসিডেন্ট ব্যারিস্টার ছামির সাত্তারকে নাগরিক সংবর্ধনা প্রদান ময়মনসিংহে জমি নিয়ে বিরোধে বাবা-ছেলে খুন সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৬ লাখ ৮৩ হাজার টাকা হজ প্যাকেজ ঘোষণা দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় বাংলাদেশের এক ধাপ অবনমন জামালপুর সদর উপজেলা পরিষদের মাসিক সমন্বয় কমিটির সভা অনুষ্ঠিত সাংবাদিককে লাঞ্ছিত করা সেই ভূমি কর্মকর্তা বদলি বকশীগঞ্জের আজমীরগঞ্জ দরবার শরীফে দুই দিনব্যাপী ওরশ শুরু

বাংলাদেশে প্রথমবারের মত বিরল প্রজাতির রেড কোরাল কুকরি সাপ পাওয়া গেছে

রিপোর্টার
  • আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় বিরল প্রজাতির সাপ উদ্ধার করা হয়েছে। সাপটির নাম রেড কোরাল কুকরি স্নেক (Red Coral Kukri/Aligodon Kheriensis Snake)।

প্রাণী বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, বাংলাদেশে প্রথমবারের মত সাপের এই প্রজাতিটি দেখা গেছে এবং পুরো পৃথিবীতেই মাত্র ২০-২২ বারের মত দেখা গেছে এই সাপ।

বুধবার পঞ্চগড়ের বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ ও উদ্ধারকারী মো. সহিদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, গত ৭ ও ৮ ফেব্রুয়ারি বোদা উপজেলার ঝলইশালশিরী ইউনিয়নের কালিয়াগঞ্জ বাজারের পাসের একটি উঁচু জায়গা এক্সেভেটর মেশিন দিয়ে কাটার সময় একটি সাপ বেরিয়ে আসে। তখন এলাকাবাসী আমাকে খবর দেন। সেখানে গিয়ে ৮টি সাপ উদ্ধার করি। সাপগুলো হচ্ছে– রেড কোরাল একটি, দাঁড়াশ সাপ দুটি, গুঁইসাপ একটি, হেলে দুটি, কৃষ্ণ কালাচ একটি।

তবে রেড কোরাল সাপটি উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে হস্তান্তর করেছি। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ভিআরসির প্রশিক্ষক বোরহান বিশ্বাস রোমন সাপটি চট্টগ্রাম নিয়ে যান।

উদ্ধারকৃত সাপগুলোর মধ্যে রেড কোরাল কুকরি সাপটি এস্কেভেটর দিয়ে আঘাত পেয়েছে। আমি প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়েছি। অন্য সাপগুলোকে ফিরোজ আল সাবাহ ও বন বিভাগের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে অবমুক্ত করা হয়।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ভেনম রিসার্চ সেন্টারের প্রশিক্ষক ও সাপ গবেষক বোরহান বিশ্বাস রোমন জানান, সাপটি মারাত্মকভাবে জখম হয়েছে। সাপটি বর্তমানে রাজশাহীতে সাপ উদ্ধার ও সংরক্ষণ কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন।

সাপ গবেষক বোরহান বিশ্বাস রোমন জানান, লাল প্রবাল সাপটি মৃদু বিষধারী ও অত্যন্ত নিরীহ। এই সাপটি পৃথিবীর দুর্লভ সাপদের একটি। পৃথিবীতে হিমালয়ের পাদদেশ দক্ষিণে ৫৫ আর পূর্ব-পশ্চিমে ৭০ কিলোমিটার এলাকায় দেখা যায়। পৃথিবীর ২১তম সাপটি মৃত অবস্থায় ও ২২তম সাপটি মারাত্মকভাবে আহতাবস্থায় পাওয়া গেছে।

তিনি জানান, সর্বপ্রথম এই সাপের দেখা মেলে ১৯৩৬ সালে ভারতের উত্তরপ্রদেশে। সেই নামানুসারেই জুওলোজিক্যাল নামকরণ করা হয়েছে oligodon kheriensis. দীর্ঘ ৮২ বছর পর ২০১৯ সালে আবার উত্তরপ্রদেশের খেরি জেলায় দেখা গিয়েছিল লাল প্রবাল সাপটি।

এ ছাড়া নেপালের মহেন্দ্রনগর, চিতোয়ান ন্যাশনাল পার্ক, ভারতের নৈনিতাল, জলপাইগুড়ির বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন সময়ে দেখা যায়।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২২ আঙ্গর টিভি