1. najmush71@gmail.com : admin : Najmush Shakeer
  2. munir2002lubnan@gmail.com : Munirul Huq Khan : Munirul Huq Khan
সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ১১:২৬ পূর্বাহ্ন

ব্যবহৃত ফোন বিক্রির আগে যে ১০ কাজ না করলে বিপদ

রিপোর্টার
  • আপডেট : বুধবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২৩

অনেকেই এখন ব্যবহৃত স্মার্টফোন বিক্রি করে নতুন ফোন কেনেন। স্মার্টফোন বিক্রি করলে যেহেতু মালিকানা পরিবর্তন হয়, তাই যন্ত্রে থাকা তথ্যও নিরাপদে সংরক্ষণ করতে হবে। অন্যথায় আর্থিক ও তথ্য সুরক্ষা নিয়ে শঙ্কা তৈরি হতে পারে। স্মার্টফোন বিক্রির আগে যে ১০ কাজ অবশ্যই করতে হবে।

ব্যাংক ও আর্থিক সেবার অ্যাপ মুছে ফেলা
ব্যাংক ও আর্থিক সেবার অ্যাপে অর্থসংক্রান্ত ও ব্যক্তিগত তথ্য থাকে। সাধারণত এসব অ্যাপে ওটিপি ছাড়া আর্থিক লেনদেন করা যায় না। তবে স্মার্টফোনে অ্যাপ চালু থাকলে তা আর্থিক ক্ষতির কারণ হতে পারে।

কল রেকর্ডস ও বার্তা মুছে ফেলা
স্মার্টফোনে সংরক্ষিত সব কল রেকর্ডস ও বার্তা মুছে ফেলতে হবে। কল রেকর্ডস এবং বার্তা গুরুত্বপূর্ণ হলে সেগুলো আলাদা কোনো স্থানে বা ক্লাউড সেবায় সংরক্ষণ করা যেতে পারে।

ছবি, ভিডিও এবং মাল্টিমিডিয়া সংরক্ষণ
স্মার্টফোনের স্টোরেজে ছবি, ভিডিওসহ অসংখ্য মাল্টিমিডিয়া আধেয় বা কনটেন্ট থাকে। এগুলো অধিকাংশ ক্ষেত্রেই প্রয়োজনের কারণে মুছে ফেলা যায় না। তাই এসব আধেয় অন্য কোনো স্থানে সংরক্ষণ করে মুছে ফেলতে হবে।

এক্সটারনাল ড্রাইভে ব্যাকআপ
ক্লাউড স্টোরেজে সহজে তথ্য সংরক্ষণ করা যায় এবং সেগুলোতে প্রবেশ করা যায়। তবে স্মার্টফোনে থাকা তথ্যের বাড়তি সুরক্ষার জন্য এক্সটারনাল ড্রাইভে ব্যাকআপ রাখা যেতে পারে।

সব অ্যাকাউন্ট থেকে বেরিয়ে যাওয়া
স্মার্টফোন থেকে যুক্ত হওয়া সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম, ই–মেইল, ব্যাংকসহ সব অ্যাকাউন্ট থেকে বের হয়ে যেতে হবে (লগআউট)। ফোন ফ্যাক্টরি রিসেট দিলেও এসব অ্যাকাউন্ট থেকে লগআউট করতে হবে।

মাইক্রো এসডি কার্ড সরিয়ে ফেলা
বাড়তি তথ্য রাখার জন্য অনেকেই স্মার্টফোনে মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করেন। স্মার্টফোন পরিবর্তনের আগে অবশ্যই এই কার্ড খুলে নিতে হবে।

সিম কার্ড সরানো এবং ই-সিমের তথ্য মুছে ফেলা
স্মার্টফোনে থাকা সিম কার্ড সরিয়ে ফেলতে হবে। এ ছাড়া যেসব ফোন ই-সিম সমর্থিত সেসব ফোন থেকে ই-সিমের সব তথ্য মুছে ফেলতে হবে।

হোয়াটসঅ্যাপ ব্যাকআপ
হোয়াটসঅ্যাপেও প্রচুর তথ্যও থাকে। তাই গুগল ড্রাইভে হোয়াটসঅ্যাপের ব্যাকআপ রাখতে হবে। পরে নতুন ফোনে এই ব্যাকআপ ব্যবহার করে পুরোনো তথ্য ফেরত আনা যাবে।

এনক্রিপশন মুছে ফেলা
ফোন ফ্যাক্টরি রিসেট দেওয়ার আগে অবশ্যই ফোনে থাকা এনক্রিপশন মুছে ফেলতে হবে। কারণ এনক্রিপশন চালু থাকলে ফ্যাক্টরি রিসেটের পরেও ফোনে প্রবেশ করা যায়।

ফ্যাক্টরি রিসেট
ফ্যাক্টরি রিসেট করলে ফোনে থাকা সব তথ্য মুছে যাওয়ায় বিভিন্ন ত্রুটিযুক্ত সফটওয়্যার, ভাইরাস বা ম্যালওয়্যার থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। আর তাই পুরোনো ফোন বিক্রির সময় সব তথ্য স্থায়ীভাবে মুছে ফেলতেও ফ্যাক্টরি রিসেট করা প্রয়োজন।

সূত্র: গ্যাজেটস নাউ

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২৩ আঙ্গর টিভি