1. najmush71@gmail.com : admin : Najmush Shakeer
  2. munir2002lubnan@gmail.com : Munirul Huq Khan : Munirul Huq Khan
সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০৭:৪৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
বাংলাদেশি ৩০০০ কর্মী নেবে ইউরোপের ৪ দেশ : পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমার বাসায় কাজ করেছে, পিয়ন ছিল, এখন ৪০০ কোটি টাকার মালিক: প্রধানমন্ত্রী হত্যার উদ্দেশ্যেই ট্রাম্পের ওপর হামলা, হামলাকারীর পরিচয় দিল এফবিআই মেয়েকে বিয়ের শর্তে জামাই-ননদের হাতে প্রশ্নপত্র তুলে দেন শ্বশুর বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠকে ওবায়দুল কাদের আমি আপনার ফরমায়েশের চাকর নই : সুশান্ত পাল সিন্দুক থেকে কোটি টাকা চুরি, ‘দুই চোরের’ মুখ দেখে বিস্মিত হামিদ বিদ্যুৎ সংযোগ ছাড়াই চলে মিটার, দেখানো হলো সংসদীয় কমিটির বৈঠকে কলম্বিয়ার কাছে যেবার ৫ গোল খেয়েছিল আর্জেন্টিনা কোটা পরিবর্তন পরিবর্ধনের ক্ষমতা সরকারের: হাইকোর্টের রায়

কয়দিন পর পর চুল কাটা উচিত?

রিপোর্টার
  • আপডেট : সোমবার, ৩১ জুলাই, ২০২৩

চুলের ধরণ, বৃদ্ধি পাওয়া এবং জীবনযাত্রার ওপর নির্ভর করে চুল কতবার কাটা উচিত। অনেকেরই দ্রুত আগা ফেটে যায়। তাই চুল কাটতে হয় কিছুদিন পর পরই। আবার কারও কারও ক্ষেত্রে তার উল্টো। উদাহরণস্বরূপ, কর্মজীবি হয়ে থাকলে চুল জলদি নোংরা হয়ে যায়। সে ক্ষেত্রে, ঘন ঘন চুল কাটার প্রয়োজন হবে।

পুরুষদের জন্য

প্রতি ৪-৬ সপ্তাহ পর পর চুল কাটা দরকার। তবে ছোট চুলের স্টাইলের জন্য আরও ঘন ঘন চুল কাটার প্রয়োজন হতে পারে। এর কারণ হল চুল বেশি বড় হয়ে গেলে স্টাইল নষ্ট হয়ে যেতে পারে। এ ছাড়া, ঘন ঘন চুল কাটলে, চুল পরিষ্কার থাকে।

নারীদের জন্য

নারীরা চুল কতবার কাটবে তা নির্ভর করে চুলের স্টাইলের ধরণের ওপর। আপনার যদি ছোট পিক্সি কাট থাকে তবে আপনাকে প্রতি ৪-৬ সপ্তাহ পর চুল কাটার প্রয়োজন হতে পারে। এর কারণ হল স্টাইল ধরে রাখা। এ সব হেয়ার কাট বড় হলেই তাদের আকৃতি হারিয়ে ফেলে। স্টাইল বজায় রাখতে, আকৃতি বজায় রাখতে এবং আগা ফাটা রোধ করতে ঘন ঘন চুল কাটা প্রয়োজন।

আবার লম্বা চুল হলে, ৮-১০ সপ্তাহ পর পর চুল কেটে নিতে পারেন। চুল সুস্থ রাখতে প্রতি ৬-৮ সপ্তাহ পর ট্রিম করিয়ে নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ। তা না হলে আগা ফেটে যায়। চুল কম বৃদ্ধি পায়। নিয়মিত ছাটাই করলে চুল সুস্থ থাকে।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২৩ আঙ্গর টিভি